Monthly Archives: December 2018

প্রেমে পাপ, পাপে মৃত্যু।

অবন্তিকা!
এ ভরা ফাগুনে
ঝলসে আগুনে
হলে হায় মম
হনন্তিকা!

কেন?

কেন যে গোবরা কভু,
গেল না গোরবা-চভু?

ভগবান।

ভগবান, ওরে, ওরে!
বানালিই যদি আমাকে তাহলে
নিজে কেন গেলি মরে?

পাঁঠা।

ওরে পাঁঠা তোর কোর্মা,
চপ, কাটলেট, দোরমা,
খাওয়ালি রে কত এ জীবন ভরে,
ঋণ শোধ তোর করি যে কী করে,
স্বপ্নেও ভেবে পাই না!
হৃদয়টা তোর হলেও বিশাল,
ভাবি আমি তবু সকাল বিকাল,
মগজটা তোর ফাঁকাই বোধহয়,
যত দেখি তোরে তাই জাগে ভয়,
তুই হতে আমি চাই না।
____

Inspired by The Pig — Ogden Nash

খাওয়া দাওয়া

সস্ত্রীক জঙ্গলে শ্রীযুক্ত নাগ
গেছিলেন – হায় সেথা খেল তাঁরে বাঘ।
বাঘেরও ঘরেতে ছিল বাঘের বাঘিনি
সে বেচারা পেল শুধু নাগের নাগিনি।
_____
Inspired by The Lion – Ogden Nash

Winter

windswept winter evening…
hunger shivers in dark shacks…
outside warm cafe…

Love

loved we at first sight,
cuddled closely together…
that puppy and I …

অগডেন ন্যাশ্‌

অগডেন ন্যাশ্‌, ওগো অগডেন ন্যাশ্‌
তোমার খাতায়, পাতায় পাতায়
আমার সর্ব ন্যাশ্‌।

অজগর

ওহে অজগর সুখে বাঁচো পেট ভরে
শুধু তুমি যেন চেও না চাখতে মোরে।
তোমারেও আমি চাবো না গিলতে কভু,
ভুল করে যদি গিলতেও যাই, তবু–
সন্দেহ হয় লেজা থেকে তব মুড়ো
উদরেতে মোর জায়গা পাবে না পুরো।

তবে এও বলি, জানবার আহ্লাদ
হয় মাঝে মাঝে, কেমনটা তব স্বাদ?
থাকে যদি বাপু এ ব্যাপারে কিছু জানা,
জানিও তোমারে কেমনে বানালে খানা,
হবে সুস্বাদু, হবে সুগন্ধ ভরা
জাগাবে পুলক, দেবে রসনাতে ধরা।

নাও জান যদি, সুখ দুঃখের গল্প,
করতে করতে চাখতে দেবে কি অল্প?
ব্যসনে ডুবিয়ে তোমাকে একটু চেঁচে
ভেজে খাই যদি থাকবে না কি তুমি বেঁচে?
তুমিও নিজেরে চিবিয়ে খানিক দেখো
বাকি ধড় তব নিজেরই জন্য রেখো।

ধড়খানা তব কোথা শেষ কোথা শুরু
নিজেই জান কি, বল অজগর গুরু?
একটু গেলেও সবই থেকে যাবে তব
মোর কিছু গেলে কতটুকু বল রব?
তাই বলি সদা বেঁচে থেক পেট ভরে
মোর দেখাদেখি চেও না চাখতে মোরে।

সুরাসুর

একটু আধটু সুরাপান ভাল
ধারণাটা ছিল কালও
কিন্তু একা একা বসে মদ্যপানে সুখ নাই
তাই
জনি ওয়াকার হাতে সাঁঝের আড্ডা দিতে গেলাম তার বাড়ি
দোতলার খোলা মেলা টানা বারান্দায় আহ্লাদে ভারি
মনে কত ছিল আশা
বোঝাবার মত কোথা মোর ভাষা
হাসি হাসি মুখে সে জানাল জমবে মৌতাতও
কৃপা করেছেন বৌ-তাত
সকালেই চলে গেছে সবাই বজবজ
তাই করবে না কেউ গজগজ
বসুন বসুন বারান্দায়
ঝিরঝিরে বাতাসের ঠাণ্ডায়
বোতলটা দিন ঢেলে আনি
দুজনের জন্যই পানি
তৈরি সবই রান্নাঘরে
ফিরে এল সে অল্প একটু পরে
কাঁসার গেলাসে ভরে জনি ওয়াকার
সাথে আড়াইখানা ক্রিম ক্র্যাকার
হয়তো গোলাপকে যাই ডাক সে থাকে মিষ্টি
তবু কাঁসার গেলাসে জনি ওয়াকারের নীল তকমা ঘটাবেই অনাসৃষ্টি
তদুপরি ক্রিম ক্র্যাকার ব্রিটানিয়ার
বারোটা বাজাতে বাধ্য তব হিয়ার
দেখে সর্বনাশা কাঁসার গেলাস
জনি ওয়াকার জাগালো না হায় কোনও উল্লাস
সুরাপান আর এ জীবনে
করব না বুঝেছি নিশ্চিত প্রাণে মনে
প্রতিজ্ঞা করেছি প্রভু
ভুলেও ছোঁব না সুরা আমি আর কভু।
_________
Non-rhythmic rhyming style inspired by Ogden Nash.