Category Archives: Bengali Limericks

ভগবান


কত সাধ ছিল আহা মনে
ভুলিয়ে ভালিয়ে নির্জনে
একা ধরে নিয়ে গিয়ে
কাতুকুতু দিয়ে দিয়ে
হাসাই তোমারে প্রাণপণে।

ব্যাকুল এ অনুরোধে হায়
প্রভু তুমি দিলে না গো সায়
বদলে আমারে ধরে
হাতিবাগানের মোড়ে
শূলে তুলে কাটলে কোথায় !

ভয়ে


কোলাঘাটে কালিপদ কোলে
নানান ভয়েতে সদা দোলে
ভূতের ভয়েতে রাতে
মানুষের ভয়ে প্রাতে
কেঁপে দোলে কালিপদ কোলে।

হাওয়া-পাওয়া


বুক ভাঙা শ্বাস ছেড়ে টাকিতে
পাঁচু দাস ক’ন — হায় বাকি-তে
বেচে এরা শুধু হাওয়া
এছাড়া যায় না পাওয়া
বাকি-তে কিস্যু কেন টাকিতে?

কেলোর কীর্তি


কেলোরাম পোদ্দার রেঁধে পদ্য
হাঁড়িতে জমাট করে রেখে অদ্য
রাত্রে তাড়িতে গুলে
খেল সব হাঁড়ি খুলে
কেলোরাম খুশি মনে রেঁধে পদ্য।

মেম মেঘ


বরষা, বরষা, বরষা!
দিচ্ছ না কেন ভরসা?
কালো মেঘগুলো
গিয়ে কোন চুলো
হল মেম সেজে ফরসা?

রমা সেন


ব্যাঘ্র পৃষ্ঠে মিঠা হাসিয়া
গিয়াছিল রমা সেন রাশিয়া
উদরে তাহারে পুরি
ফিরিয়া আসিল ঘুরি
একাকী ব্যাঘ্র মৃদু হাসিয়া।

পাদরি


দাদরিবাসী এক সে ছিল পাদরি
নজরে তার পড়ল হঠাৎ মাদ্রী
সে সুন্দরীদের রাণী
তাই আলখাল্লা টানি
দাদরি ছাড়া মাদ্রী করে পাদরি।

আত্মজিজ্ঞাসা


সুধাকর ঢালি
কেঁদে কেটে কালই
বলে গেল আমি ওরে,
সত্যিই আমি তো রে?
কেঁদে কেটে হাউ হাউ সুধাকর ঢালি।

নালিশবুড়ো

palishgram


পালিশগ্রামে করত নালিশ ক্রুদ্ধ সে এক বৃদ্ধ —
বেয়াইনি এই শীত কেন বল করছে না নিষিদ্ধ?
সরকারটার নেই দরকার
দিস নে ওদের ভোট কভু আর
কাঁপতে কাঁপতে নালিশিস্কুলে পালিশগ্রামের বৃদ্ধ।

জ্যামিতি


জ্যামিতি পড়াতে গিয়ে সীতারাম সরখেল
ছাত্রের মুণ্ড-ুটা ভেবে নিয়ে ন’রকেল
অন্তত ষাটটা
মারলেন গাঁট্টা
মুণ্ড-ুটা ভেঙে হোল দুটো সেমি স’রকেল।